ভারতের ২ পুলিশ কনস্টেবলের কাণ্ডে হতবাক গোটা দেশ

হায়দরাবাদ গণধর্ষণ কাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের পৈশাচিক ধর্ষণকাণ্ডের খবর ভারতে। এবার রক্ষকই ভক্ষক। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব যাদের হাতে তারাই দিল বর্বরতার চুড়ান্ত নির্দশন।

বিহারের বক্সারে নাবালিকাকে পৈশাচিক গণধর্ষণের পর নির্মমভাবে গুলি করে মারা হয়। পরে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয় নিথর দেহ।

অভিযুক্ত বিহারের বক্সার ইটারী থানার দুই কনস্টেবল। এমন নৃশংস অত্যাচারের ঘটনা সামনে আসতেই ফের ক্ষোভে ফেটে পড়ছে সাধারণ মানুষ।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরীর আধপোড়া দেহ উদ্ধার করে ইটারী থানার পুলিশ। এখনও ভিকটিমের কোনও পরিচয় পাওয়া যায়নি। পুলিশ দেহের ময়নাতদন্ত করালে সেই রিপোর্টেই উঠে আসে এই বীভৎস সত্যি।

জানাগেছে, একাধিকবার ধর্ষণের পর গুলি করে খুন করা হয় ওই নাবালিকাকে। এতেই শেষ নয় মৃত্যু নিশ্চিত করতে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় দেহ। ধর্ষণে যুক্ত হিসেবে যে দুই কনস্টেবলের নাম উঠে এসেছে, তাদের মধ্যে এক কনস্টেবল আগেই সাসপেন্ড।