করোনার চিকিৎসা হতে পারে যে দুটি ওষুধে

সারা বিশ্বে মহামারীর আকার নিয়েছে করোনাভাইরাস। এমন অবস্থায় বিভিন্ন দেশের কয়েক হাজার চিকিত্সক বিজ্ঞানী এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার মতো ওষুধের সন্ধানে নেমে পড়েছেন। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এবার এক কদম এগিয়ে ভাবল আমেরিকা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক সাংবাদিক সম্মেলনে করোনা প্রতিরোধের সম্ভাব্য দুটি ওষুধের নাম বলেছেন। আর তার পর থেকেই শুরু হয়েছে জল্পনা।

ট্রাম্প বলেছেন, ''ম্যালেরিয়ার চিকিত্সার জন্য ব্যবহৃত একটি পুরানো ওষুধ হল ক্লোরোকুইন। এই মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এই ওষুধ প্রাথমিক পর্যায়ে ভালো ফল দিয়েছে। এর আগে ইবোলা এবং মারবার্গ ভাইরাল সংক্রমণের জন্য চিকিৎসা হিসাবে গড়ে তোলা রিমাদেসিভিরো নিয়েও আমাদের চিকিৎসকরা কাজ করছেন। এটিও করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য পর্যালোচনা করা হচ্ছে। প্রাথমিক পর্যায় ভালো ফল পাওয়া গিয়েছে।''

এফডিএ কমিশনার ডাঃ স্টিফেন হ্যান বলেছেন, ''এই দুটি ওষুধকে করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত ঘোষণা করার আগে বড় ধরনের পরীক্ষা করে দেখতে হবে। তার জন্য কিছুদিন সময় প্রয়োজন। কিন্তু এই ভাইরাস যেভাবে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে তাতে হাতে কতটুকু সময় পাওয়া যাবে এখন সেটা প্রশ্ন। করোনভাইরাসে আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা সত্ত্বেও কোনও ব্যক্তি সুস্থ থাকলে বুঝতে হবে, তাঁর রক্তে ভাইরাস নেই। সম্ভাব্য চিকিৎসার জন্য আমরা সংশ্লিষ্ট সুস্থ ব্যক্তির রক্ত সংগ্রহ করতে পারব।''