করোনা যুদ্ধে জয়ী উহান

সারা বিশ্ব কাঁপছে করোনা আতঙ্কে। বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩ লাখ। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার মানুষের। থরহরি কম্পমান পৃথিবী। এরই মধ্যে চীন থেকে এল অন্য খবর। শেষ তিনদিনে চরনে স্থানীয় স্তরে আক্রান্তের সংখ্যা একেবারে শূন্য। যা দেখে আশা জাগছে অন্য দেশেরও।

মনে করা হচ্ছে বিশ্বজোড়া এই মহামারির কেন্দ্র উহান প্রদেশ। প্রথমদিকে রীতিমতো শ্মশানে পরিণত হয়েছিল চীনের এই প্রদেশ। কিন্তু আশার কথা হল শেষ তিনদিনে এখানে একজনও করোনা আক্রান্ত হননি। শুধু উহান না, উহানের পাশাপাশি চীনের অন্য স্থানীয় এলাকাতেও কেউ নতুন করে আক্রান্ত হননি। দেশের বাইরে থেকে সংক্রমণের জন্য আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে।

এই বাইরে থেকে সংক্রমণের ব্যাপারটার সঙ্গে ভারতের বেশ কিছু মিল রয়েছে। যে সকল লোকেরা বাইরে থেকে চীনে আসছেন, তাদের দেহে মিলছে করোনার মারণ ভাইরাস। এর মধ্যে শুধুমাত্র বেজিংয়ে ১৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। সাংঘাইয়ে সংখ্যাটা ছয়।

অন্যদিকে গোটা ইউহান শহরটাকেই জীবানুমুক্ত করতে চাইছে চীনা প্রশাসন। শহরজুড়ে কাজ শুরু করেছেন সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীরা। ছড়ানো হচ্ছে জীবাণুনাশক। শহর থেকে ভাইরাস দূরে ছুঁড়ে ফেলতে মরিয়া প্রশাসন। শহর জুড়ে ড্রোনের মাধ্যমে রাখা হচ্ছে নজরদারি।

উল্লেখ্য, চীনে করোনা ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৮১ হাজারের কিছু বেশি। মৃত্যু হয়েছে ৩২০০-এর বেশি মানুষের। সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়িয়ে লড়াইয়ে ফিরে যেন বিশ্ববাসীকে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ফেরার ডাক দিচ্ছে লাল চিন।