গাড়ি আটকানোয় তরুণীর কান্ড!

ভারতে এখন চলছে লকডাউন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে বন্ধ গাড়ি ও জনসমাগম। অযথা কাউকে বাইরে দেখলেই ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। তারই মধ্যে ঘটেছে অপ্রাতিকর ঘটনা।

গাড়ি আটকানোয় পুলিশের সাথে অভব্য আচরণ করেছেন এক তরুণী। ঘটনাটি ঘটেছে সল্টলেকের পিএনবি মোড়ে।

অভিযুক্ত তরুণীর নাম শর্মিষ্ঠা দেবনাথ। বয়স ২৪ বছর।

জানা গিয়েছে, লকডাউনের জন্য নাকা চেকিং করছিল পুলিশ। তখন একটি  অ্যাপ ক্যাবে পিকনিক গার্ডেন এলাকা থেকে ২ জন আসেন। পিএনবি মোড়ের কাছে গাড়িটিকে আটকানো হয়। কোথা থেকে আসছেন, কোথায় যাবেন, নিয়ম মেনে এগুলোই জিজ্ঞাসা করে পুলিশ।

ঠিক তখনই গাড়ি থেকে নেমে এসে অকথ্য ভাষায় পুলিশকে গালিগালাজ করে ওই তরুণী। এরপরই ওই তরুণী এক পুলিশকর্মীর ইউনিফর্ম 'চেটে' দেয়। তার গালে একটি ফোঁড়া ছিল। সেটি ঘষে দেয় উর্দিতে। ফলে রক্ত বেরিয়ে ইউনিফর্মে লেগে যায়। পুলিসকে উদ্দেশ করে ওই তরুণীকে বলতে শোনা যায়, 'এই যে করোনা, এই যে করোনা!'

রাস্তার উপর পুলিশের সঙ্গে তরুণীর এহেন আচরণে হকচকিয়ে যায় অন্যরাও। মোবাইল বের করে ছবি তুলতে থাকেন অনেকে। ওই তরুণী দাবি করে, সে একা। তাই ওষুধ কিনতে বেরিয়েছিল। কিন্ত ওষুধ কিনতে সল্টলেক থেকে পিকনিক গার্ডেন কেন? এখানেই উঠছে প্রশ্ন।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত তরুণী শর্মিষ্ঠা দেবনাথ (২৪) সহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে রয়েছে ওই তরুণীর বন্ধু নির্মল বাল্মিকী (৩০) ও গাড়িচালক জাভেদ খান (৩৬)। গাড়িটিকেও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।