করোনাভাইরাস: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৮৫০২

বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ আতঙ্ক তৈরি করেছে করোনাভাইরাস। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রাণহানি আর আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। করোনার হানায় বিপর্যস্ত বিশ্ব। শক্তিশালী দেশগুলোও এর সঙ্গে পেরে উঠছে না।

এখন পর্যন্ত ২০৯টি দেশ ও অঞ্চলে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ১৮ হাজার ২৩।

অপরদিকে প্রাণঘাতী করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৮৮ হাজার ৫০২ জনের। তবে এখন পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লাখ ৩০ হাজার ৩৫৭ জন। করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে এবং সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৩১ হাজার ৯৩৫ জন। ফলে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৩৪ হাজার ৯২৭। অপরদিকে দেশটিতে নতুন করে ১ হাজার ৯৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট প্রাণহানির সংখ্যা ১৪ হাজার ৭৮৮।

দেশটিতে ২২ হাজার ৮৯১ জন ইতোমধ্যেই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। তবে ৯ হাজার ২৭৯ জনের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে স্পেনে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৪৮ হাজার ২২০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ১৪ হাজার ৭৯২ জন। দেশটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ২৭৮ এবং নতুন করে মারা গেছে ৭৪৭ জন।

ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৩৯ হাজার ৪২২ এবং মারা গেছে ১৭ হাজার ৬৬৯ জন। দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ৩ হাজার ৮৩৬ এবং নতুন করে মারা গেছে ৫৪২ জন।

জার্মানিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ২৯৬ এবং মারা গেছে ২ হাজার ৪৯ জন। দেশটিতে করোনায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৬৩৩ এবং নতুন করে মারা গেছে ৩৩৩ জন।

ফ্রান্সে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৮৮১ জন এবং মারা গেছে ৫৪১ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১২ হাজার ৯৫০ এবং মোট প্রাণহানি ঘটেছে ১০ হাজার ৮৬৯ জনের।

সংখ্যা ৬৪ হাজার ৫৮৬ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৯৯৩ জন।

অপরদিকে, যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজার ৭৩৩ এবং মারা গেছে ৭ হাজার ৯৭ জন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বাংলাদেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪ এবং নতুন করে মারা গেছে ৩ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২১৮ এবং মোট প্রানহানি হয়েছে ২০ জনের। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩৩ জন। তবে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।