পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে তান্ডব শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘আমফান’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিঘা উপকূলে আছড়ে পড়তে শুরু করেছে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফান। এরই মধ্যে গাছপালা উপড়ে পড়েছে। বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্রবেশ করছে পানি।

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছিল, বুধবার বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে ‘আমফান’।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, প্রবল গতিতে আছড়ে পড়ার পরে ১২ ঘণ্টা ধরে তাণ্ডব চালাবে অতি মারাত্মক ঘূর্ণিঝড় ‘আমফান’। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সাত জেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।

এই সময় জানায়, ঘণ্টায় ২৯ কিলোমিটার গতিতে স্থলভাগের দিকে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’।

এদিকে আবহাওয়ার ৩৪ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশের  আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘আমফান’ বুধবার বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৩০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ২৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

ঘূর্ণিঝড়টি বিকেল বা সন্ধ্যার মধ্যে সাগরদ্বীপের পূর্বপাশ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৮৫ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ২০০ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ২২০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।