দুই কোরিয়ার মধ্যে চরম উত্তেজনা

দুই কোরিয়ার মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যে নিজেদের ভূখণ্ডে অবস্থিত একটি যৌথ লিয়াজোঁ দফতর গুড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। সীমান্তে সেনা পাঠানোর হুমকি দেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এমন ঘটনা ঘটল।

বিবিসি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বিকাল তিনটার কিছু আগে সেখানে একটি বিস্ফোরণের কথা নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সরকার।

উত্তর কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ জানিয়েছে, মঙ্গলবার ওই লিয়াজোঁ কার্যালয়টি ‘মারাত্মক বিস্ফোরণে শোচনীয়ভাবে ধ্বংস হয়ে গেছে’।

উত্তরের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যমটি। জানায়, ‘অমানুষ এবং যারা এ অমানুষদের আশ্রয় দিয়েছে, তাদের অপরাধের মূল্য হিসেবে,’ ভবনটি গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

গত এক সপ্তাহ ধরে দুই কোরিয়ার মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। সীমান্তের ওপার থেকে পিয়ংইয়ংবিরোধী প্রচারণা বন্ধে সিউল ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে দাবি করে আসছে উত্তর কোরিয়া, এ কারণেই হঠাৎ করে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

এদিকে, সিউল মার্কিন সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করে উত্তর কোরিয়ার এ হুমকি মোকাবেলায় সীমান্তে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে।

এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই নিজেদের সীমান্তের ভেতর অবস্থিত লিয়াজোঁ দফতরটি গুড়িয়ে দিল উত্তর কোরিয়া।

মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনী বলেছে অসামরিক অঞ্চলে সেনা পাঠানোর ব্যাপার তারা একটি কর্মপরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে।

দেশটির সেনাবাহিনীর দফতর জানিয়েছে তারা ‘অতি সতর্ক’ আছেন এবং সরকারি সিদ্ধান্ত আসা মাত্রই তারা দ্রুততার সঙ্গে তা বাস্তবায়নে প্রস্তুত রয়েছেন।