এক টুকরো চিপস বিক্রি হচ্ছে প্রায় দু’লক্ষ টাকায়

এক টুকরো আলুর চিপসের দাম প্রায় ২ লক্ষ টাকা। অবাক হলেন? অবিশ্বাস্য লাগল? শুনতে অবিশ্বাস্য লাগলেও এটাই সত্যি। কিন্তু প্রশ্ন হল, এইচিপসের দাম এত বেশি কেন?


সামান্য এক টুকরো আলুর চিপস। অথচ তার এমন মাত্রাতিরিক্ত দাম! ইতোমধ্যে বিক্রির জন্য ওই চিপসটিকে অনলাইনে তোলা হয়েছে। তবে কী এমন বিশেষত্ব আছে এই চিপসে? জানা গিয়েছে, গত ৩ মে এক অনলাইন কেনাবেচার একটি সাইটে ওই আলুর চিপসটিকে বিক্রির জন্য তুলেছেন লন্ডনের এক বাসিন্দা। জানা গিয়েছে, সেটি অনিয়ন ফ্লেভার স্পেশাল চিপস। বিক্রেতার বক্তব্য, এটি একেবার নতুন ধরনের একটি চিপসের পিস। তাঁর কথায়, ''ব্র্যান্ড নিউ, অব্যবহৃত, খোলা হয়নি, কোনওভাবে ক্ষতিগ্রস্ত নয় চিপসটি।'' সেই কারণেই এই এক পিস আলুর চিপসের দাম রাখা হয়েছে ২ হাজার ইউরো যা ১ লক্ষ ৬৩ হাজার টাকার কাছাকাছি।


জনপ্রিয় অনলাইন বিপণন সংস্থা eBay-তে শুধুমাত্র একটি চিপস বিক্রি হচ্ছে ২,০০০ পাউন্ডের বিনিময়ে। অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় যা ১ লক্ষ ৯০ হাজার টাকার সমান। এখন, স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে পারে যে এই চিপসের বিশেষত্ব ঠিক কি? এই প্রসঙ্গে ওই সংস্থার বিশ্বাস যে, এই চিপস গুলি অত্যন্ত মুচমুচে এবং আকারে খুব বিরল হয়। পাশাপাশি, এই চিপসে টক ক্রিম এবং পেঁয়াজের স্বাদ পাওয়া যায়। শুধু তাই নয়, ওই চিপস গুলির প্রান্তটিও ভাঁজ করা থাকে।


আরও কারণ উল্লেখ করেছেন ওই বিক্রেতা। বলা হয়েছে, চিপসটির অভিনব আকৃতিও এতখানি দাম ওঠার অন্যতম কারণ। এর মাথার দিকে রয়েছে ভীষণই আলাদা ধরনের একটি ভাঁজ। যা চিপসটির বাকি অংশের আকৃতির সঙ্গে নাকি দারুণ মাননসই। এর ফলেই প্রায় দুই লক্ষ টাকা দাম নিরীহ ওই আলুর চিপসের। আসলে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় আজব কাণ্ডের শেষ নেই। কোন কারণে যে কী ঘটনা ভাইরাল (Viral) হবে, তা বলা বেজায় কঠিন। তবে নেটিজেনরা এই চিপসের এত দাম হওয়ার কোনও কারণই খুঁজে পাচ্ছেন না।


সবচেয়ে আশ্চর্য ব্যাপার হল, eBay-তেই শুধু এই দুর্লভ চিপস বিক্রি হয় তা নয়। অনেকেই আছেন যাঁরা এই চিপস অত্যন্ত কম দামেও বিক্রি করছেন। Reddit-এ, একজন বিক্রেতা মাত্র ৫০ পাউন্ডের বিনিময়ে টক ক্রিম এবং পেঁয়াজের সাথে দু’টি চিপস বিক্রি করছেন। পাশাপাশি, ম্যানচেস্টারে, অতিরিক্ত ১৫ পাউন্ডের ডেলিভারি চার্জ সহ একটি হানি গ্লেজড হ্যাম ফ্লেভারড Pringles-ও পাওয়া যায়। তাহলে আপনিও কি এই মূল্যের বিনিময়ে বিরল এই চিপসের স্বাদ নিতে চান?